Text size A A A
Color C C C C
পাতা

সিটিজেন চার্টার

ক) প্রতিগ্রামথেকে৬০টিদরিদ্রপরিবারবাছাইকরেগ্রামউন্নয়নসমিতিগঠনকরা।

খ) দরিদ্র জনগোষ্ঠীকে সঞ্চয়মুখি করে তাদের পুঁজি গঠনের জন্য প্রতিটি দরিদ্র পরিবারকে তাদের নিজস্ব মাসিক সঞ্চয়ের (২০০/-টাকা) বিপরীতে প্রকল্প থেকে মাসে ২০০/- টাকা উৎসাহ বোনাস হিসেবে বছরে ২৪০০/- টাকা অনুদান প্রদান করা যার মাধ্যমে পরিবার প্রতি বছরে সঞ্চয় হবে ৪,৮০০/- টাকা।

গ) সঞ্চয়/উৎসাহ বোনাসের অতিরিক্ত সমিতি প্রতি বছরে ১,৫০,০০০/- টাকা সুদবিহীন ঋণ তহবিল প্রদান করা।

ঘ) সমিতির সভাপতি/ম্যানেজার/সদস্যদের প্রয়োজনানুযায়ী বিষয়ভিত্তিক প্রশিক্ষণ প্রদান করা।

ঙ) উঠান বৈঠকের মাধ্যমে তহবিল ব্যবহার করে নিজেদের প্রয়োজনানুসারে প্রকল্প গ্রহণ করে মৎস্য চাষ, পশু পালন, নার্সারী, সব্জিবাগান, হাঁস-মুরগী পালনসহ পেশাভিত্তিক জীবিকায়নের জন্য প্রতি বাড়িতে খামার গড়ে তোলা।

চ) এলাকার অনিবাসী ভূমি মালিকের অব্যবহৃত/পড়ে থাকা জমিজমা সমিতির আওতায় চাষাবাদ ও তা সংরক্ষণ করা।

একটিবাড়িএকটিখামারপ্রকল্পেগ্রামউন্নয়নকমিটিরমাধ্যমেব্যাংকে সঞ্চয়করাহয়।একমিটিরসদস্যরাপ্রত্যেকেমাসে২০০টাকাকরেদেনএবংসরকার থেকেদেয়াহয়২০০টাকা।এইভাবেপ্রতিজনেরনামেমাসেজমাহয়৪০০টাকা।

বর্তমানে ১৭ হাজার ৩০০ গ্রামে এই প্রকল্প চালু রয়েছে। ১০ লাখ ৩৮ হাজার পরিবার এর সুবিধাভোগী। বর্তমানে ব্যাংকে জমা সম্মিলিত তহবিলের পরিমাণ ১ হাজার ৩৩২ কোটি টাকা। এক বছরে প্রতিজনের মাসিক আয় বেড়েছে ১০ হাজার ৯২১ টাকা। গ্রাম উন্নয়ন কমিটির সিদ্ধান্ত অনুযায়ী এর সদস্যরা ঋণ নিতে পারেন এবং তা ক্ষদ্র ব্যবসায় বিনিয়োগ করে স্বাবলম্বী হতে পারেন।

একটিখামারএকটিবাড়িপ্রকল্পেরসুবিধাভোগীসমিতিগুলোরহাতে৪৯শতাংশ মালিকানারেখেপল্লীসঞ্চয়ব্যাংকপ্রতিষ্ঠারপ্রস্তাবেসম্মতিদিয়েছে মন্ত্রিসভা।

ব্যাংকের৫১শতাংশমালিকানাসরকারেরহাতেএবংবাকি৪৯শতাংশওইপ্রকল্পেরসুবিধাভোগীদেরনিয়েগঠিতসমিতিগুলোরহাতেথাকবে।

ব্যাংকের অনুমোদিত মূলধন হবে ১ হাজার কোটি টাকা, আর পরিশোধিত মূলধন থাকবে ২০০ কোটি টাকা।